গলাচিপা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদপ্রার্থী-আরিফুর রহমান খান


Munna প্রকাশের সময় : ২০/০৩/২০২৩, ২:২৩ অপরাহ্ণ /
গলাচিপা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদপ্রার্থী-আরিফুর রহমান খান

মোঃমাজহারুল ইসলাম মলি  গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি  বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের গলাচিপা উপজেলা ও পৌর শাখার বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে গতকাল ১৯ই মার্চ বিকেল ৪ ঘটিকায়। উপজেলা ও পৌর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের শীর্ষ নেতৃত্বে আসতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের হাইকমান্ডের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন অনেকেই। পিছিয়ে নেই গলাচিপা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য ও ঢাকা পলিটেকনিক ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য মোঃআরিফুর রহমান খান। গলাচিপা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হতে চান তিনি। সার্বিক বিষয়ে কথা হয় মোঃআরিফুর রহমান খান এর সঙ্গে। তিনি বলেন, গলাচিপা পৌর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সৎ যোগ্য নেতৃত্ব এখন সময়ের দাবি। আমি দলে অনুপ্রবেশকারী নই। ছাত্রজীবন থেকে সততার সঙ্গে রাজনীতি করে যোগ্যতার পরিচয় দিয়েছি। টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, মাদক এবং কোন অপরাধের সাথেও কোনদিন জড়াইনি। এ কারণেই দীর্ঘদিন উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য হিসেবে সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছি। নিজের কাছে আপনি যোগ্য প্রার্থী কিনা; এমন প্রশ্নের জবাবে মোঃআরিফুর রহমান খান বলেন, ‘বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে দেশবাসী ও আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের হাইকমান্ড যেমন ব্যক্তিত্ব খুঁজছেন; আমি মনে করি প্রতিটি ক্ষেত্রেই আমি যোগ্য। স্বাভাবিকভাবে গলাচিপা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি প্রার্থী হতেই পারি। সভাপতি মনোনীত হলে আপনার পরিকল্পনা কী; জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগকে ঢেলে সাজাতে চাই। প্রকৃত আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকর্মীদের প্রাধান্য দিতে চাই। দলকে সুসংগঠিত করতে যা করা প্রয়োজন তার সর্বোচ্চটা করতে চাই। নেতৃত্ব নির্বাচনের ক্ষেত্রে অবশ্যই ছাত্ররাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান এমন ব্যক্তি হতে হবে। মোঃআরিফুর রহমান খান বলেন, প্রায় ২০ বছরেরও বেশি দীর্ঘায়িত রাজনৈতিক জীবন। একটা দিন একটা মুহুর্তও দলের সিদ্ধান্তের বাহিরে যাইনি। ১/১১ শেখ হাসিনার মুক্তির আন্দোলনে সাহসী ভূমিকা রেখেছি। নিজের জীবন বাজি রেখে জামায়াত-বিএনপি ও শিবিরের তান্ডবের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছি। আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে ভূমিকা রেখেছি। এখনও দলকে সুসংগঠিত করতে দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। জানা যায়, পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা পৌরসভার ০৭ নং ওয়ার্ডের মুসলিম পরিবারে জন্ম নিয়েছিলেন তিনি। পারিবারিকভাবেই আওয়ামী লীগ। ২০০৬ সালে ২রা অক্টোবর লগি-বৈঠা আন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। ১/১১ এ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও দেশরত্ন শেখ হাসিনার মুক্তির আন্দোলনে ছাত্রলীগে অংশগ্রহণ করেন। রাজনৈতিক কর্মসূচির পাশাপাশি সামাজিক কর্মকান্ডে রাখছেন ভূমিকা।