রূপগঞ্জ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের ছয় সদস্য গ্রেপ্তার


Munna প্রকাশের সময় : ১১/১২/২০২৩, ৬:৩৮ অপরাহ্ণ /
রূপগঞ্জ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের ছয় সদস্য গ্রেপ্তার

সোহেল কবির, স্টাফ রিপোর্টার নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের আঞ্চলিক প্রধান সমন্বয়কারী ও প্রশিক্ষণ শাখার প্রধান আব্দুর রাজ্জাক ওরফে ইসহাক ওরফে সাইবাসহ (৪১) ছয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করে র্যাব-১। রোববার (১০ ডিসেম্বর) রাতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন র্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন। সোমবার (১১ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান। গ্রেপ্তার বাকি জঙ্গি সদস্যরা হলেন মো. শরিফুল ইসলাম ওরফে মুরাদ (৩১), আশিকুর রহমান ওরফে উসাইমান (২৭), মুহাম্মদ জাকারিয়া ওরফে আবরার (২৪), মো. আল আমিন ওরফে রবিন ওরফে সামুরা (২৪), মো. আবু জর ওরফে মারুফ (১৮)। এসময় তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ জিহাদি ও উগ্রবাদী বই এবং অন্যান্য সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। খন্দকার আল মঈন জানান, গত বছর ঢাকার আদালত চত্বর থেকে দুর্ধর্ষ দুই জঙ্গি সদস্যকে ছিনিয়ে নেওয়ার বিষয়টি জানতেন আনসার আল ইসলামের প্রধান সমন্বয়কারী ইসহাক। জঙ্গি ছিনতাইয়ের আগেই তাদের সঙ্গে কারাগারেই ইসহাকের যোগাযোগ ছিল। কাশেমপুর কারাগারে আনসার আল ইসলামের সদস্যদের সঙ্গে নিয়মিত সাক্ষাৎ ও স্বজনদের দেখা করিয়ে দেওয়ার কাজ করতেন ইসহাক। নিষিদ্ধ এই দলটির শীর্ষ স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ ও সংগঠনটির অন্যতম সমন্বয়ক হিসেবে পরিচিত পান তিনি। ইসহাকের নির্দেশে অবৈধভাবে সীমান্ত পথে পার্শ্ববর্তী দেশে যায় চার জঙ্গি সদস্য। তাদের প্রশিক্ষণের জন্য সেখানে পাঠানো হয়েছিল। তবে এ বছরের মাঝামাঝি সময়ে সেখানে গ্রেপ্তার হন তারা। তিনি বলেন, আনসার আল ইসলামের আমির আবু ইমরানের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল ইসহাকের। তার নির্দেশেই নতুন সদস্যদের প্রশিক্ষণ দিতেন ইসহাক। দাখিল পর্যন্ত পড়াশুনা করা গ্রেপ্তার আব্দুর রাজ্জাক ওরফে ইসহাক ওরফে সাইবা ২০১৫ সালে সংগঠনের শীর্ষ স্থানীয় নেতাদের মাধ্যমে উগ্রবাদে উদ্বুদ্ধ হয়ে আনসার আল ইসলামে যোগ দেন। বিভিন্ন পেশার আড়ালে সংগঠনের দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালনা করতেন।