প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ


Munna প্রকাশের সময় : ১৩/০২/২০২৩, ৮:১১ অপরাহ্ণ /
প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

নিজস্ব সংবাদদাতা।
সকল অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, আমি সাংবাদিক মো.সাইমুন ইসলাম(৪৪),পিতা-বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোঃ
নূরুল ইসলাম(অবসর প্রাপ্ত সেনা সদস্য), দাপা ইদ্রাকপুর, ফতুল্লা,নারায়ণগঞ্জ, বর্তমান জামতলা, আমার পিতা জীবন
বাজি রেখে দেশ,মা মাটি মানুষের জন্য যুদ্ধ করেছেন, দেশের ¯^াধীনতা যুদ্ধে অবদান রেখেছেন।

আমি গর্বিত একজন পিতার সন্তান হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে সুনামের সহিত মহান সাংবাদিকতা পেশায় কাজ করে আসছি। সারাদেশে মহামারী করোনাকালীন সময় ও এর আগে পরে এবং নানান প্রতিক‚ল মুহূর্তেও জীবনের ঝুকি নিয়ে সংবাদ সংগ্রহে নিজেকে আত্মনিয়োগ করেছি। দীর্ঘদিন যাবৎ এ মহান পেশা বুকে ধারন লালন করে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশে অবদান রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। দেশ ও দশের কল্যানে অনেক বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ আমার লেখনিতে পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে, যা অনেকেই দেখেছেন।

দেশের বহুল প্রচারিত সুনামধন্য জাতীয় দৈনিক মানবকণ্ঠ, ইংরেজি দৈনিক দি বাংলাদেশ টুডেতে নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। এছাড়া দৈনিক বাংলাদেশের আলো দি এশিয়ান এইজ এর মতো
পত্রিকায় কাজ করেছি।আমি অত্যন্ত দুঃখের সহিত জানাচ্ছি, গত ১২ আগষ্ট ২০২২ইং থেকে সর্বশেষ ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ইং, তারিখে বিভিন্ন সময়ে নামধারী ফেসবুক ও নিবন্ধনহীন একটি পোর্টাল নারায়ণগঞ্জ নিউজ আপডেট” ও ঞধযবৎ ঐড়ংংধরহ নামক ফেইজবুক আইডিতে,আমি সহ প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের জড়িয়ে ভিত্তিহীন উদ্দেশ্য প্রনোদিত অপপ্রচার ও অসামজস্যপূর্ন বিব্রান্তি মূলক অপপ্রচার করা হয়েছে, যা আমার বোধগম্য নয়, যার সম্পূর্ন তথ্য ভুল, মনগড়া,
বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। একজন পেশাদার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে এ ধরনের অপপ্রচার দুঃখজনক যা কোনোভাবেকাম্য নয়।

একজন পেশাদার সাংবাদিক হিসেবে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি যা আইনত দন্ডহীন ও মানহানীকর অপরাধের সামিল।অত্যন্ত দুঃখ ও ভারাক্রান্ত মনে আপনার/আপনাদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে, আমার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে অপপ্রচার অসঙ্গতিপূর্ণ, আমার ব্যক্তিগত জীবন হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্যে নামধারী সাংবাদিক, মাদক কারবারি কুচক্রী, পেশাদার ব্লাকমেইলার,চাঁদাবাজ, একাধিকবার গণধোলাই খাওয়া চাঁদাবাজ আমাকে হেয় প্রতিপন্ন চরিতার্থ করার ল¶্যে নানান ভাবে সম্মাহানিকর কর্মযজ্ঞ চালাচ্ছে যা অত্যন্ত দুঃখজনক,বিব্রতকর মানহানির সামিল,অসংগতিপূর্ন অপপ্রচার।

এ ধরনের নামধারী ফেসবুক সাংবাদিকরা দেশ দশের জন্য অত্যন্ত বিপদজনক,তারা সর্বত্রই অপপ্রচার মূলক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকে।তিনি বিভিন্ন সময়ে নানাভাবে অর্থ আদায়ের লক্ষ্যে সমাজের বহু সুশীল সমাজ,নামীদামী ব্যাক্তি, রাজনৈতিক ব্যাক্তি, এমনকি প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও রাস্ট্রীয় নানান কর্মকান্ডে মিথ্যা অসঙ্গতিপূর্ণ অপপ্রচার করে থাকেন।

নিবন্ধনহীন নিউজ পোর্টাল নারায়ণগঞ্জ নিউজ আপডেট” এর মোঃ তাহের হোসেন, (চাদাঁবাজি দায়ে একাধিক বার
গনধোলাইয়ের শিকার) পিতা-তারা মিয়া, মাতা-অজ্ঞাত, বাসা- বাবুরাইল, বউ বাজার (ঋৃষি বাড়ির রাস্তার অপজিট পাশে)ঠিকানা- ফাতেমা টাওয়ার, ৫১এসি ধর রোড (আমান ভবনের পিছনে) কালির বাজার, নারায়ণগঞ্জ, আমার বিরুদ্বে উদ্দেশ্য প্রনোদিতভাবে নানান মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বিভ্রান্তিকর, বানোয়াট তথ্যে দিয়ে আমার বিরুদ্ধে নানান অপকৌশল সহ নানান অপপ্রচার চালাচ্ছেন, অথচ এই ব্যক্তি তাহের হোসেন কে আমি নিজেও ব্যাক্তিগত ভালো করে চিনি ও জানি না।
সামান্য কয়েক সেকেন্ডের সৌজন্য মোবাইল আলাপচারিতাকে ইস্যু করে, আমার ভাবমূর্তি নষ্ট করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়ে,ভিন্ন ধারায় ভিন্ন ভাবে অপপ্রচার করেছেন, এছাড়াও আমার বিরুদ্ধে নানার ধরনের মিথ্যাচার ও অসত্য ভিত্তিহীন অপপ্রচার করেছেন।

তিনি কোনো নিবন্ধিত ও বৈধ পত্রিকায় আজও কাজ করেছেন কিনা? তাহলে কিছু নীতিমালা জানতেন,এভাবে কাদা ছোড়াছুড়ি অপপ্রচার চালিয়ে মহান সাংবাদিক পেশাকে কলুশিত করতেন না। তার এহেন মিথ্যা
বানোয়াট ভিত্তিহীন তথ্যে ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তিনি প্রায়শই প্রসাশনে
উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা সাথে এডিট ছবি ব্যবহার করে কুৎসা ও মানহানিকর দন্ডনীয় অপরাধ মূলক কর্মকান্ড সহ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান বলে নানান ধরনে কুৎসা রটাচ্ছেন। আমি উল্লেখিত তথ্য পরিবেশন গর্হিত অপরাধ মূলক কর্মকন্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।