নাসিক দুই নং ওয়ার্ড কাউন্সিল কার্যালয়ে হামলা


Sokal Pratidin প্রকাশের সময় : ০৮/০৯/২০২৩, ১১:১৪ অপরাহ্ণ /
নাসিক দুই নং ওয়ার্ড কাউন্সিল কার্যালয়ে হামলা

নিজস্ব সংবাদদাতা।। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: ইকবাল হোসেনের কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করেছে সন্ত্রাসীরা। স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো: শফিকুল ইসলাম শফির ছেলে ‘টেনশন গ্রুপ’ নামক কিশোর গ্যাং প্রধান শান্তর নেতৃত্বে শুক্রবার ( ৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় এহামলা করা হয় বলে অভিযোগ কাউন্সিলর ইকবালের।

অভিযোগ জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মিজমিজি আব্দুল আলি পুল এলাকার মৃত শহীদুল ইসলামের ছেলে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বহুল বিতর্কিত শফিকুল ইসলাম শফির হুকুমে তার ছেলে কিশোরগ্যাং নেতা শান্তর নেতৃত্বে ২০-২৫ জন মিলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের কার্যালয়ে হামলা চালানো হয়। হামলাকারিরা কার্যালয়ের সমস্ত জানালার গ্লাস ভাঙচুর করে। এসময় কার্যালয়ে কোন লোকজন ছিলনা। ফলে বিনা বাধায় ভাঙচুর করে সন্ত্রাসীরা।
এবিষয়ে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে, কাউন্সিলর ইকবাল ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, শফির ছেলে শান্তর নেতৃত্বে আমার অফিসে হামলা চালিয়ে ব্যপক ভাঙচুর চালায়। তার আগে আমার ব্যক্তিগত সচিব তুহিনকে ধরে নিয়ে প্রায় ১ ঘন্টা আটকিয়ে রাখে। একই সন্ত্রাসীরা গত ৩০ অগস্ট ও ৪ সেপ্টেম্বর দিবাগত গভীর রাতে আমার বাড়িতে দুদফা হামলা চালায়। এসব ঘটনায় থানায় অভিযোগ করতে গেলেও পুলিশ অভিযোগ গ্রহণ করেননি।
হামলার বিষয়ে জানতে চাইলে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন,“বিএনপি নেতা ইকাবাল তার রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের জন্য আমার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করছে। সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আমি প্রার্থী হওয়ার পর থেকেই আমার সঙ্গে তার বিরোধ চলে আসছে। তাকে পুঁজি করে তার নিজস্ব লোকজন দিয়ে হামলার ঘটনা সাজিয়ে আমার উপর দোষ চাপানোর চেষ্টা করছে। এবিষয়ে আমার কিছু জানা নেই।”
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বলেন,“হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে এখনো থানায় কোন লিখিত অভিযোগ করা হয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”