ডেমরায় যুবলীগ নেতার উপর বিএনপি জামাতের হামলা


Munna প্রকাশের সময় : ১১/১০/২০২৩, ৪:১৭ অপরাহ্ণ /
ডেমরায় যুবলীগ নেতার উপর বিএনপি জামাতের হামলা

রাজধানীর ডেমরায় মো. মাইনুদ্দিন সোহেল নামে (৪২) এক ওয়ার্ড যুবলীগ নেতাকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় ৩ দিন ধরে ডেমরা থানায় মামলা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী ডিএসসিসির ৬৬ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।

আবাসিক এলাকায় জনসম্মুখে স্থানীয় কিশোর গ্যাং মাদকসেবীদের বাজে আড্ডা ও মাদক সেবনে বাঁধা দেওয়ার জেরেই সোহেলের ওপর এ হামলা চালানো হয়েছে বলে জানা গেছে। গত রোববার (৮ অক্টোবর) দুপুরে বামৈল পূর্ব পাড়ায় ওই হামলায় কিশোর গ্যাং সদস্যরা সোহেলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে। এ সময় বাম পাশের গালে, বুকে ও পেটে কয়েকবার ছুরিকাঘাত করায় গুরুতর রক্তাক্ত জখম হন ওই নেতা।

এ ঘটনায় চিৎকার করলে স্থানীয়রা দ্রুত এগিয়ে এসে সোহেলকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। পরবর্তীতে চিকিৎসা নিয়ে সোহেল গত ৯ অক্টোবর অভিযুক্ত সায়মন (১৮), আসিক (২২) ফাহিম (১৯) ও রাব্বি (২০) সহ অজ্ঞাত ৮ থেকে ৯ জন জনের বিরুদ্ধে ডেমরা থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন। ডেমরা থানা পুৃলিশ এ ঘটনায় মামলার আশ্বাস দিলেও তদন্ত শেষে মামলা নিচ্ছে না বলে জানিয়েছেন সোহেল। এ ঘটনায় ৩ দিনেও গ্রেফতার হয়নি কেউ।

যুবলীগ নেতা সোহেল জানান,বামৈল এলাকায় ইদানিং গর্জে উঠেছে কিশোর গ্যাং। অভিযুক্তরা স্থানীয় বিএনপি নেতাদের সঙ্গে জড়িত ও এলাকার চিহ্নিত কিশোর গ্যাং যা ওপেন সিক্রেট। তারা প্রতিনিয়ত আবাসিক এলাকায় জনসম্মুখে বাজে আড্ডা ও মাদক সেবন করে। এছাড়াও স্কুলে আসা যাওয়ার পথে মেয়েদেরকে উত্ত্যক্ত করে। তাদের এসব অনৈতিক কাজে এলাকার মুরব্বিরা সহ আমি কয়েকবার বাঁধা দিলে তারা ক্ষিপ্ত হয়। আর একটি মহলের ইন্ধনে তারা আমার ওপর পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হামলা এ চালায়।

এ বিষয়ে ডেমরা থানার ওসি মো. জহিরুল ইসলাম বলেন,যুবলীগ নেতার ওপর হামলা ঘটনা শুনেছি। তদন্ত সাপেক্ষে দ্রুত জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনতগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। থানায় মামলা নিতে পুলিশের গরিমসির বিষয়টি সঠিক নয়।