গলাচিপার বাঁশবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভৌতিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি


Munna প্রকাশের সময় : ০৪/০৪/২০২৩, ১০:০৯ অপরাহ্ণ /
গলাচিপার বাঁশবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভৌতিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

 মোঃমাজহারুল ইসলাম মলি গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি :

 

গলাচিপা বাঁশবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভৌতিক একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি নিয়ে জোর আলোচনা চলছে। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটি সহ অন্যন্য সদস্যরা কিছুই জানেন না। অথচ বিজ্ঞপ্তটি সভাপতি দরখাস্ত আহবান করলেও নিচে নম্বর দেওয়া ওই প্রতিষ্ঠানের পলাশ নামের একজন সহকারী শিক্ষকের। তবে সংশ্লিষ্ট সবাই বিষয়টি অস্বীকার করেন। অপর দিকে বিজ্ঞপ্তি দেখে আবেদন করলে তা ফিরিয়ে দিয়েছেন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষককে অভিযুক্ত করে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের কাছে একটি আবেদন করেন ভুক্তভোগী কুতুবউদ্দিন । অভিযোগের আবেদনের বিষয়টি হাতে পেয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম মোস্তফা। এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক পদে আবেদনকারী মুহাম্মদ কুতুব উদ্দিন তালুকদারের লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গলাচিপা উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের বাঁশবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নামে গত ২ মার্চ তারিখ একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। উক্ত বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে অবহিত হয়ে তিনি ১৩ মার্চ গলাচিপা পোস্ট অফিসের রেজিষ্ট্রি নম্বর ৮২৯ এর মাধ্যমে প্রধান শিক্ষক পদে আবেদন পত্র প্রেরণ করেন। আবেদন পত্রটি ১৬ মার্চ বিদ্যালয়ের ঠিকানায় সভাপতি বরাবর পৌঁছালেও তা গ্রহণ না করে আবার প্রেরক কুতুব উদ্দিন তালুকদারের ঠিকানায় ফেরত পাঠানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে মুঠোফোনের নম্বরের কল দিলে অপর প্রান্ত থেকে এক ব্যক্তি তার নাম পলাশ বলে পরিচয় দেন। তিনি ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। ঘটনা সম্পর্কে বাশবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পলাশ বলেন, বিজ্ঞাপনে আমার নম্বর কে দিয়েছে তা আমি জানি না। তবে যদি প্রয়োজন মনে করি সভাপতির সাথে আলোচনা সাপেক্ষে আইনী ব্যবস্থা নিব। এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক তাসলিমা বেগম বলেন, কে বা কারা বিজ্ঞাপন দিয়েছে তা আমার জানা নাই। এ বিষয়ে করণীয় যা কিছু সব সভাপতি ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এ ঘটনা সম্পর্কে পরিচালনা কমিটির সভাপতি শামিমা আক্তার মনি বলেন, বাশবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কোন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়নি। কে বা কারা এ ভৌতিক বিজ্ঞাপন দেয় তা জানা নাই। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব। এ বিষয়ে গলাচিপা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম মোস্তফা বলেন, কুতুব উদ্দিন টুটুর লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।