কিডনি রোগে আক্রান্ত চা বিক্রেতা নুরুজ্জামান বাঁচতে চায়


Sokal Pratidin প্রকাশের সময় : ২৬/০২/২০২৩, ৪:৪৯ অপরাহ্ণ /
কিডনি রোগে আক্রান্ত চা বিক্রেতা নুরুজ্জামান বাঁচতে চায়

মোঃ জুয়েল রানা, স্টাফ রিপোর্টার: সুন্দর এই পৃথিবীতে আগের মতো স্বাভাবিক জীবন নিয়ে বাঁচার আকুতি জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন দয়া করে আমাকে এবং আমার সন্তান দু’টিকে বাঁচান। মানবতার এই জগৎ থেকে বিনা চিকিৎসায় বিদায় নিতে চান না তিনি। ‘মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য, একটু সহানুভূতি কি মানুষ পেতে পারে না’। এমনিই এক আকুতি জানিয়েছেন কুমিল্লা তিতাস উপজেলার কলকান্দি ইউনিয়নের কলাকান্দি গ্রামের মৃত কফুল উদ্দিনের ছেলে মো. নুরুজ্জামান। হতদরিদ্র পরিবারে জন্ম নেওয়া সহায়-সম্বলহীন নুরুজ্জামান পেশা একজন চা বিক্রেতা। চা বিক্রি করে ভালোই চলছিলো তাদের সংসার জীবন। তাদের সংসার জীবনে রয়েছে ৫ বছরের একটি মেয়ে ও ৩ বছরের একটি ছেলে। সুন্দর এই সুখের মধ্যে হঠাৎ নেমে আসে দুখের কালো ছায়া। গত দুই মাস পূর্বে আক্রান্ত হয়ে পরেন দুরারোগ্য কিডনি রোগে। বর্তমানে তার জীবন সংকটাপন্ন। চিকিৎসকের রিপোর্ট অনুযায়ী তাঁর দু’টো কিডনীই বিকল। তাকে মাসে কমপক্ষে ৪ বার কিডনি ডায়ালাইসিস করতে হয়। যা একবার ডায়ালাইসিস করতে ১০ হাজার টাকা খরচ হয়। কিডনীর এই ব্যয় বহুল চিকিৎসা চালাতে গিয়ে তিনি সর্বশান্ত হয়ে পড়েছেন। আত্মীয়স্বজন ও পাড়া-প্রতিবেশীদের সাহায্য-সহযোগিতায় গত দুই মাস চিকিৎসা চলছিল। যতদিন বেঁচে থাকবেন, ততদিন তাকে ডায়ালাইসিস করার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। সে মতে প্রতি মাসে তার চিকিৎসা ও ওষুধ বাবদ ৫০ হাজার টাকার প্রয়োজন হয়। যা চা বিক্রেতা নুরুজ্জামান এর পক্ষে এ অর্থ যোগাড় করা সম্ভব হচ্ছে না। তার সুচিকিৎসার জন্য আরো অনেক টাকার প্রয়োজন। তাই মানবিক কারণে চিকিৎসা ব্যয়ে আর্থিক সহায়তা চেয়ে সমাজের সকল হৃদয়বান, বিত্তশালী, দানশীল ও সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠানের নিকট সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন তার পরিবার। সাহায্য পাঠানোর বিকাশ ও যোগাযোগের মোবাইল নাম্বার হলো ০১৬৪০৯২৭৮৭৬.